গলায় কলম ধরে বিমান ছিনতাই!

Air china flight 1350

এয়ার চায়নার ফ্লাইট ১৩৫০-এর ৪১ বছর বয়সী এক পুরুষ যাত্রী বিমানবালাকে জিম্মি করতে কলমটি ব্যবহার করে

ঝরনা কলমধারী এক যাত্রী বিমানবালাকে হুমকি দেয়ার পর এয়ার চায়নার একটি উড়োজাহাজ অনির্ধারিত অবতরণে বাধ্য হয়েছে। রোববার বেইজিংগামী উড়োজাহাজটি ঝেংঝু শহরের শিনঝেং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ল্যান্ড করে বলে জানিয়েছে চীনের সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ।

নিজেদের ওয়েবসাইটে দেয়া সংক্ষিপ্ত এক বিবৃতিতে চীনের সিভিল এভিয়েশন প্রশাসন জানিয়েছে, এয়ার চায়নার ফ্লাইট ১৩৫০-এর ৪১ বছর বয়সী এক পুরুষ যাত্রী ওই বিমানবালাকে জিম্মি করতে কলমটি ব্যবহার করে।

এ ঘটনায় একজন আহত হয়েছেন। এবং হুমকি দেয়া ব্যক্তি পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। এছাড়া বিস্তারিত আর কিছু জানানো হয়নি।

চীনের দক্ষিণাঞ্চলীয় হুনান প্রদেশের রাজধানী চাংশা থেকে স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে উড়োজাহাজটি রওনা হয়েছিল।

 

এক মাস ধরে বিমানবন্দরে!

এক মাসেরও বেশি সময় মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরেই আটকে রয়েছেন হাসান। কাজের অনুমতির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় ২০১৬ সালে সংযুক্ত আরব-আমিরাত থেকে চলে আসতে হয়েছিল সিরিয়ার নাগরিক হাসান আল- কোনতারকে। তখন সিরিয়ায় যুদ্ধ শুরু হয়ে গেছে। তাই মালয়েশিয়ায় থাকতে চেয়েছিলেন তিনি; কিন্তু তা ভেস্তে যাওয়ায় কম্বোডিয়া ও ইকুয়েডরে যাওয়ার চেষ্টা করেন হাসান। তা-ও ব্যর্থ হয়।

সম্প্রতি নিজের অবস্থা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন হাসান। কুয়ালালামপুরের ২ নম্বর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে এই ভিডিওটি পোস্ট করেন তিনি। তাতেই হাসানের দুর্দশার বিষয়টি সামনে আসে। বিবিসি থেকে যোগাযোগের পর উদ্বিগ্ন কণ্ঠে হাসান বলেন, বিমানবন্দরে অনেক দিন ধরে থাকতে থাকতে দিন গোনাই ভুলে গেছেন তিনি!

হাসান আল-কোনতার বলেন, ‘আমি সাহায্য পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছি। আমি আর বিমানবন্দরে থাকতে পারছি না, অনিশ্চয়তা আমাকে পাগল করে তুলেছে। মনে হচ্ছে, আমার জীবন অতলে হারিয়ে যাচ্ছে।’ তিনি আরো জানান, বিমানবন্দরে থাকায় ঠিকমতো গোসল ও দাড়ি-গোঁফ কামানোর সুযোগও পাচ্ছেন না।

সিরিয়ায় সঙ্ঘাতের কারণে আরব আমিরাতে চাকরি করতে গিয়েছিলেন জানিয়ে হাসান বলেন, ‘আমি সেখানে আমার চাকরি ও কাজের অনুমতি-দুটোই হারিয়েছি। সেই থেকে দৌড়াচ্ছি আমি।’ তিনি জানান, বিশ্বের কয়েকটি দেশের বিমানবন্দরে সিরীয়দের ‘অন অ্যারাইভাল’ ভিসা দেয়া হয়। মালয়েশিয়া তেমনই একটি দেশ। তাই প্রথমেই এখানে এসেছিলেন তিনি। জাতিসঙ্ঘের শরণার্থীবিষয়ক হাইকমিশনারের দফতর এক বিবৃতিতে বলেছে, হাসান আল- কোনতারের বিষয়টি সম্পর্কে তারা অবগত আছে এবং এর সমাধানে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও কর্তৃপরে সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে। ইন্টারনেট।

Leave a Reply